প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগকে সফল করতে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে একটি পরিবারও গৃহহীন থাকবে না  -ডেপুটি স্পিকার

প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগকে সফল করতে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে একটি পরিবারও গৃহহীন থাকবে না  -ডেপুটি স্পিকার

ফুলছড়ি প্রতিনিধি: জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার এডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া বলেছেন, দুস্থ, অসহায় ও গৃহহীনদের ঘর করে দেওয়া সওয়াবের কাজ। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের গৃহহীন প্রত্যেকটি পরিবারকে থাকার জন্য স্বপ্নের নীড় তৈরি করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগকে সফল করতে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। একাজে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি ও বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে বাংলাদেশে একটি পরিবারও গৃহহীন থাকবে না। 
শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেশের ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারগুলোকে জমি ও গৃহ প্রদান কর্মসূচির উদ্বোধনের পর ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলায় নির্মিত ৭৫টি পরিবারের মাঝে জমির দলিল ও ঘরের চাবি হস্তান্তরের সময় তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু রায়হান দোলন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ, কঞ্চিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লিটন মিয়া প্রমুখ। এসময় ফুলছড়ি উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি ও গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 
ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু রায়হান দোলন জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার হিসেবে মাথা গোঁজার ঠাঁই ভূমিসহ একটি পরিপূর্ণ ঘর পেলেন ফুলছড়ি উপজেলার ৭৫টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মানুষ। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর মাধ্যমে নির্মিত একটি পরিবারের জন্য দুই রুম বিশিষ্ট সেমি পাকা ঘরে আছে রান্না ঘর, বাথরুম, ইউটিলিটি রুম ও সামনে খোলা বারান্দা। প্রতিটি পরিবারের নামে ২ শতক খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়ে এ সকল ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণের জন্য ব্যয় হয়েছে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা। উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির মাধ্যমে উপকারভোগী নির্বাচন করা হয়।