গাইবান্ধায় সাংস্কৃতিক কর্মীদের মানববন্ধন

গাইবান্ধায় সাংস্কৃতিক কর্মীদের মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার: জেলা শিল্পকলা একাডেমীর গঠনতন্ত্রে কিছু অগণতান্ত্রিক ধারা সংযোজন ও প্রতিস্থাপনের মধ্যদিয়ে শিল্পকলা একাডেমিকে অগনতান্ত্রিক-আমলাতান্ত্রিক ও বড়লোকদের প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন গাইবান্ধার সাংস্কৃতিক কর্মীরা। অগণতান্ত্রিক সকল ধারা বাতিলের দাবীতে গাইবান্ধায় এক মানববন্ধন ও  বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এমন অভিযোগ করেন তারা। 

শনিবার শহরের ডিবি রোডে ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তারা ওই ধারা বাতিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  হস্তক্ষেপ কামনা করেন। 

মানববন্ধন চলাকালে জেলা উদীচীর সভাপতি জহুরুল কাইয়ুম বলেন, গঠনতন্ত্রে সংগঠনের নির্বাহী কমিটিতে ১৫ জনের মধ্যে ১০ জন নির্বাচিত হতেন। সংশোধনীতে নির্বাচিত ৮ জন করে ৭ জনকেই অনির্বাচিত নেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। আবার অনির্বাচিত সাতজনের মধ্যে ৪ জনকেই মনোনয়ন দেবেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী পরিষদ। এরফলে সাংস্কৃতিক কর্মীরা বাদ পড়ার আশঙ্কার পাশাপাশি অদক্ষ অযোগ্য মানুষ ঢুকে পড়বে এবং আমলাতান্ত্রিক জটিলতা বাড়বে। তার অভিযোগ, একটি মহল বিশেষ উদ্দেশ্যে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদককে ঠুঁটো জগন্নাথ বানিয়ে সংশোধনীতে যাবতীয় যোগাযোগ ও অর্থসংক্রান্ত দায়িত্ব জেলা কালচারাল অফিসারকে দিয়েছে। সংশোধনীতে তিনি প্রশাসনিক ও আর্থিক বিষয়ে নির্বাহী কমিটির পরিবর্তে একাডেমীর মহাপরিচালকের কাছে দায়বদ্ধ থাকবেন। সংশোধনী অনুযায়ী বিধি বহিভর্‚ত ভাবে কালচারাল অফিসারের একক স্বাক্ষরে হিসাব পরিচালিত হলে অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার সুযোগ সৃষ্টি হবে। এতে সাংস্কৃতিক কর্মীদের স্বাভাবিক কার্যক্রম ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সাংস্কৃতিক কর্মী অমিতাভ দাশ হিমুন বলেন, জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে ভর্তি ফি ৫শ’ টাকার পরিবর্তে  দ্বিগুন করে ১ হাজার এবং বাৎসরিক ফি দু’শ টাকার পরিবর্তে ৫শ টাকা নির্ধারণ করায় দরিদ্র সাংস্কৃতিক কমীরা শিল্পকলা একাডেমীর সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন। তিনি বলেন, শিল্পকলা একাডেমীকে আমলাতান্ত্রিক ও বড়লোকের প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার এই ষড়যন্ত্র সফল হতে দেবেনা সাংস্কৃতিক কর্মীরা। 

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংস্থার কার্যকরী সভাপতি ও ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রিয় পলিব্যুরো সদস্য আমিনুল ইসলাম গোলাপ, নাট্যজন রাগিব হাসান চৌধুরী হাবুল, আমিনুল ইসলাম খোকন, সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য মিহির ঘোষ, উদীচী’র জেলা সভাপতি অধ্যাপক জহুরুল কাইয়ুম, জেলা জাসদের সম্পাদক জিয়াউল হক জনি, সাংবাদিক হেদায়েতুল ইসলাম বাবু, রাজনীতিক খান সাইদ হাসান জসীম, নাট্যজন দেবাশীষ দাস দীপু ও শিরিন আকতার।